World Coronavirus Death : করোনার গ্রাসের বিশ্ব LIVE: পাকিস্তানে একদিনে আক্রান্ত ১ হাজার ৩৯ – coronavirus outbreak death latest news in world live updates in bengali

0
17
Print Friendly, PDF & Email

নিউ ইয়র্কের মতো নিউ জার্সিও করোনার হটস্পট। শুক্রবার সন্ধে পর্যন্ত আমেরিকায় করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৭৮ হাজার ৫৯৯ জনের। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয় ১,৬৭১ জনের। নতুন করে আক্রান্ত ২৯ হাজার ৪৩জন। সব মিলিয়ে আমেরিকায় করোনার শিকার ১৩ লক্ষ ২১ হাজার ৬৬৬ জন।

মেক্সিকোয় নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন আরও ১ হাজার ৯০৬ জন। মৃত্যু হল আরও ১৯৯ জনের। এই নিয়ে সে দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হল ৩১ হাজার ৫২২। মোট মৃতের সংখ্যা ৩ হাজার ১৬০ জন। এরই মধ্যে সুস্থ হয়ে গিয়েছেন প্রায় ২০ হাজার ৩১৪ জন।

পাকিস্তানে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন আরও ১ হাজার ৩৯ জন। মৃত্যু হল আরও ১৯ জনের। এই নিয়ে সে দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হল ২৭ হাজার ৪৭৪। মোট মৃতের সংখ্যা ৬১৮ জন। এরই মধ্যে সুস্থ হয়ে গিয়েছেন প্রায় ৭ হাজার ৭৫৬ জন।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় মৃত্যু হল ভারতীয় বংশোদ্ভূত দুই চিকিত্‍‌সকের। সম্পর্ক বাবা-মেয়ে। নিউ জার্সিতে তাঁদের মৃত্যু হয়েছে। করোনা আক্রান্তদের চিকিত্‍‌সা করতে গিয়ে তাঁরাও সংক্রমণের শিকার হন। অন্যের জন্য এ ভাবে জীবন উৎসর্গ করায়, মৃত ২ চিকিত্‍‌সকের প্রশংসা করেন গভর্নর ফিল মারফি।

গুতেরেসের মতে, অতিমারির চেহারা নেওয়ার পর থেকেই অনলাইন ও সোশ্যাল মিডিয়ায় বিদেশি-ভীতি চেপে বসেছে বিভিন্ন দেশের মানুষের মধ্যে। কখনও কখনও সেই ঘৃণা বাস্তবে মানে রাস্তায়, পথে-ঘাটে মুসলিম বিদ্বেষেও পরিণত হচ্ছে। অবিলম্বে এই বিদ্বেষ বন্ধ করতে রাষ্ট্রগুলিকে উদ্যোগ নিতে বলেছেন গুতেরেস।

চিনে সংক্রমণের খবর পেয়েই গোটা আফ্রিকা সোশ্যাল ডিস্ট্যান্সিং, মাস্ক পরা বা হাত ধোয়ার মতো করোনা রোখার মৌলিক শর্তগুলি পালন করতে শুরু করেছিল। তাতে কাজও হচ্ছিল। কিন্তু গত এক সপ্তাহে আফ্রিকায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে ৩৮ শতাংশ। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (হু) সতর্কবার্তা, কনটেনমেন্টের প্রয়োজনীয় শর্তগুলি পূরণ করতে না-পারলে এক বছরে আফ্রিকায় মৃত্যু হতে পারে এক লক্ষ ৯০ হাজার মানুষের।

করোনা মোকাবিলায় দরকারি স্বাস্থ্য পরিকাঠামো আফ্রিকায় রয়েছে কি না, তা নিয়ে সমীক্ষা চালিয়েছিল রয়টার্স। যা তথ্য এসেছে, তাতে স্পষ্ট, একবার যদি সংক্রমণ ছড়াতে শুরু করে, তা হলে আফ্রিকার ঘোর বিপদে পড়বে।

আফ্রিকায় হু-র প্রধান মাতশিদিসো মোইতি বলেছেন, ‘হট স্পটগুলিতে ধোঁয়ার মতো ধীরে ধীরে ছড়াতে পারে করোনাভাইরাস।’ বাস্তবে আফ্রিকায় হচ্ছেও তা-ই। বিক্ষিপ্ত ভাবে এবং তুলনায় ধীরে সংক্রমণ ছড়াচ্ছে গোটা মহাদেশে। করোনা সংক্রমণের এই ধারা কিন্তু ব্যতিক্রমী।

নাইজিরিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা এবং আইভোরি কোস্টের মতো দেশগুলি লকডাউনের রাশ আলগা করতে শুরু করতে না-করতেই হু-র এই সতর্কবাণী এল। তাতে বলা হয়েছে, প্রথম বছরে ২৯০-৪৪০ লক্ষ মানুষ সংক্রামিত হতে পারেন।



Source link