Live Updates of Coronavirus in India : ভারতে করোনা সংক্রমণ LIVE: ২৪ ঘণ্টায় কোভিড আক্রান্ত ৩ হাজার ২৭৭ – coronavirus pandemic death cases latest news in india live updates

0
13
Print Friendly, PDF & Email

—গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় আক্রান্ত ১২৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। কোভিড-১৯ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন আরও ৩ হাজার ২৭৭ জন। রবিবার সকালে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক থেকে এই তথ্য জানানো হয়েছে। তাদের ওয়েবসাইটে দেওয়া পরিসংখ্যান অনুযায়ী দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬২ হাজার ৯৩৯ জন। সুস্থ হয়েছেন ১৯৩৫৮ জন। মৃত্যু হয়েছে ২০১৯ জনের।

–করোনার কবলে পুলিশ এবং অন্য নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরাও। মহারাষ্ট্রে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৭১৪ জন পুলিশকর্মী! এখনও পর্যন্ত পাঁচ জনের মৃত্যু হয়েছে। উদ্বেগের পরিস্থিতি দিল্লিতেও। সেখানে ১১০ জন পুলিশকর্মী করোনা পজিটিভ। কোয়ারান্টিনে পাঠানো হয়েছে আরও ১৫০ জনকে। কিছুদিন আগেই দিল্লি পুলিশের এক কনস্টেবলের করোনায় মৃত্যু হয়। পজিটিভ তাঁর স্ত্রী ও মেয়েও। কর্মীদের ক্ষোভ সামাল দিতে বিশেষ হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ তৈরি করেছে দিল্লি পুলিশ, সেখানেই তাঁদের অভিযোগ শোনা হচ্ছে।

—মে মাসের শুরুর দিকে পরিসংখ্যানগত দিক থেকে পরিস্থিতি কিছুটা ভালো থাকলেও, গত তিন-চার দিনে মৃতের হার এ ভাবেই বেড়েছে। শনিবারের সাংবাদিক বৈঠকে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন সে কথা স্বীকারও করে নিয়েছেন। ভারতের অবস্থা ইউরোপ-আমেরিকার দেশগুলির মতো হবে না এই আশ্বাস দিয়েও তাঁর বক্তব্য, ‘সবথেকে খারাপ পরিস্থিতির জন্যই দেশকে তৈরি রেখেছি আমরা।’

–স্বাস্থ্য মন্ত্রকের দেওয়া তথ্য বলছে, ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৩,৩২০ জন নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ৯৫ জনের। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৬০ হাজারের কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছে। আর মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়ে ১,৯৮১-তে। সরকারি তথ্য অনুযায়ী, ২৪ ঘণ্টায় সবথেকে বেশি মৃত্যুর খবর এসেছে মহারাষ্ট্র থেকে (৩৭)। তার পরই প্রধানমন্ত্রীর নিজের রাজ্য গুজরাট (২৪)।

—মহারাষ্ট্রের পাশাপাশি গুজরাটের পরিস্থিতি ক্রমেই ভয়াবহ হয়ে উঠছে। রোজই লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্ত এবং মৃতের সংখ্যা। সে রাজ্যের পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের নির্দেশে শনিবার বায়ুসেনার বিশেষ বিমানে আমেদাবাদ পৌঁছন এইমসের ডিরেক্টর রণদীপ গুলেরিয়া। সঙ্গে ছিলেন এইমসের মেডিসিন বিভাগের প্রধান মণীশ সুরেজা।

—বিশেষজ্ঞদের অনেকেই আশঙ্কা করছেন, গুজরাটের পরিস্থিতি আগামী দিনে মহারাষ্ট্রের থেকেও খারাপ হবে। সেই কারণেই সম্ভবত তড়িঘড়ি সেখানে পাঠানো হল এইমসের ডিরেক্টরকে।



Source link