coronavirus : মদ পাচারকারীদের ছাড়তে ৫০ লাখের ঘুষ! বরখাস্ত পুলিশকর্মী… – a bengaluru cop has been suspended for allegedly demanding rs 50 lakh bribe in exchange for the release of two men, who were held while transporting 100 bottles of alcohol in the city

0
27
Print Friendly, PDF & Email

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: করোনাভাইরাসের জেরে দেশজুড়ে মদের দোকান বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। তারই মধ্যে লুকিয়ে মদ বিক্রির অভিযোগ শোনা গিয়েছে বিভিন্ন রাজ্য থেকেই। এবার সেই তালিকায় নাম উঠল বেঙ্গালুরুর। শুধু তাই নয়, লুকিয়ে মদ ডেলিভারি করতে যাওয়া দুই ব্যক্তিকে হাতেনাতে ধরে ফেলেও, ৫০ লক্ষ টাকা ঘুষ চেয়ে এক পুলিশকর্মী উঠে এসেছেন সংবাদ শিরোনামে।

অভিযোগ, দুই ব্যক্তি ১০০ টি মদের বোতল পাচার করতে গিয়ে ধরা পড়ে যায় ইলেকট্রনিক সিটির পুলিশের সহকারী কমিশনার বাসুর হাতে। তিনি ওই ব্যক্তিকে ছাড় দেওয়ার বদলে ৫০ লক্ষ টাকা ঘুষ দাবি করেন। মদ ডেলিভারি করতে যাওয়া দুজনকেই গ্রেফতার করেছে পুলিশ। অন্যদিকে, সাসপেন্ড করা হয়েছে এসিপি বাসুকেও।

যদিও এসিপি বাসু সমস্ত অভিযোগ তুলেছেন তাঁর সিনিয়র অ্যাডিশনাল কমিশনার অফ পুলিশ (পূর্ব) এস মুরুগানের বিরুদ্ধে। এসিপি বাসুর অভিযোগ, কয়েকটি বোতল এস মুরুগান নিজেই ডেলিভারি চেয়েছিলেন।

জানা গিয়েছে, গত ১১ এপ্রিল এসিপি বাসু ‘GST এমারজেন্সি’ লেখা একটি গাড়িকে ধাওয়া করছিলেন। তাঁর মনে হয়েছিল, সাইনবোর্ডটি ভুয়ো। স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের দাবি, বাসু ওই টাটা সুমো গাড়িটি ধরে ফেলেন। সেই গাড়িতে ৮ টি কার্টনে প্রায় ১০০টি মদের বোতল উদ্ধার করেন তিনি।

সেখানেই দুই পাচারকারীকে গ্রেফতার করেন বাসু। অভিযুক্তদের নাম বিশেষ গুপ্তা এবং গোপী। ধৃতদের ইলেকট্রনিক সিটি পুলিশ স্টেশনে নিয়ে যান তিনি। এসিপি বাসুর দাবি, বিশেষ গুপ্তা তাঁকে ৫০ লক্ষ টাকা ঘুষ দিতে চেয়েছিল। তাঁর দাবি, বিশেষ তাঁকে জানিয়েছিল এই ৮ কার্টন মদ সে অ্যাডিশনাল কমিশনার অফ পুলিশ (পূর্ব) এস মুরুগানের জন্য নিয়ে যাচ্ছে। পরে যদিও মুরুগানের কথাতেই ওই দুই ব্যক্তি জামিন পেয়ে যায়।

কনস্টেবল জনার্দনকে কাজে লাগিয়ে এসিপি বাসু ধৃতদের কাছ থেকে ৫০ লক্ষ টাকা ঘুষ নেন বলে অভিযোগ ওঠে পুলিশের অন্দরেই। ঘটনার জেরে অনির্দিষ্টকালের জন্য এসিপি বাসুকে সাসপেন্ড করা হয়েছে।



Source link