Corona Outbreak in West Bengal Live Updates : করোনায় আক্রান্ত বাংলা LIVE: শিবপুরে আরও ৪ পুলিশ পজিটিভ, ওষুধের হোম ডেলিভারিও শুরু হল হাওড়ায় – Bengali News | Coronavirus West Bengal Death Toll : Coronavirus Cases Disease Deaths In West Bengal Kolkata Howrah Hooghly Live Updates

0
22
Print Friendly, PDF & Email

বাজার-দোকানে ভিড় বন্ধ করতে বিশেষ নজরদারির আওতায় থাকা এলাকায় বাড়ি বাড়ি খাদ্যসামগ্রী পৌঁছনোর উদ্যোগ নিয়েছিল হাওড়া পুর নিগম। যদিও তা মূলত সীমাবদ্ধ ছিল উত্তর হাওড়ায়। উত্তর হাওড়া ছাড়াও নিগম এলাকার গোলাবাড়ি, মালিপাঁচঘরা, হাওড়া ও শিবপুর থানা এবং সাঁকরাইল থানার অনেকটা অংশও রয়েছে বিশেষ নজরে। এই সমস্ত এলাকায় যাতে সম্পূর্ণ লকডাউন জারি রাখা যায়, তাই এ বার মুদিখানার জিনিসপত্র, আনাজপাতির সঙ্গে ওষুধেরও হোম ডেলিভারি শুরু হল হাওড়া সিটি পুলিশের উদ্যোগে।

—করোনা-হীন রোগীরাও যাতে স্বাভাবিক পরিষেবা পান, তার জন্য পদক্ষেপ করা শুরু করল শহরের হাসপাতালগুলি। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকে এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন এক স্বাস্থ্য আধিকারিক।

—মুচিপাড়ায় হচ্ছে করোনামুক্তি যজ্ঞ।

—কমলপুর চা বাগান পরিদর্শন করল কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল।

—শিলিগুড়ির হাসপাতাল ঘুরে দেখল কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল। পাশাপাশি শিলিগুড়ির করোনা আক্রান্ত ৪৭ নং ওয়ার্ডেও পরিদর্শনে যায় তারা।

—লকডাউন পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে ফের রাস্তায় কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক দল। সকালে বালিগঞ্জের বিএসএফ ক্যাম্প থেকে বের হন কেন্দ্রীয় প্রতিনিধিরা। নিরাপত্তার দায়িত্বে বিএসএফ জওয়ানরা। প্রথমে তাঁরা বেলেঘাটা এলাকা পরিদর্শন করেন। বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালের আশপাশের এলাকার ছবি তোলেন। এরপর সল্টলেকের আমরি হাসপাতালে যান কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষকরা।

সুপার, মেডিক্যাল অফিসার-সহ পর পর কয়েক জন কর্মী কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত হওয়ায় বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল হাওড়া জেলা হাসপাতালের রোগী পরিষেবা। সোমবার চালু হল ওই হাসপাতালের ফিভার ক্লিনিক। এ ছাড়া হাওড়া পুর নিগম এলাকার আরও চারটি হাসপাতালে এই ক্লিনিক চালু হয়েছে।

গত ১ এপ্রিল উত্তর হাওড়ার এক মহিলার মৃত্যু হয় জেলা হাসপাতালে। কয়েক দিনের মধ্যেই কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত হন হাসপাতালের সুপার, মেডিক্যাল অফিসার, নার্স-সহ একাধিক ব্যক্তি। হাসপাতাল সম্পূর্ণ ভাবে জীবাণামুক্ত করতে সব বিভাগ বন্ধ করে দিতে হয়।

হাওড়ার চারটি থানা এলাকায় এ দিনও সিটি পুলিশের নাকা তল্লাশি, টহলদারি, ড্রোন মারফত নজরদারি চোখে পড়েছে। তবে সাঁকরাইল থানার ধূলাগড়ি পাইকারি বাজারে উপচে পড়া ভিড় ছিল। সামাজিক দূরত্ব বজায় না রেখেই হাওড়া পাইকারি সব্জি বাজারের মতো ধূলাগড়ি পাইকারি বাজারেও এ দিন গায়ে গা ঠেকিয়ে বেচাকেনা করতে দেখা যায় অনেককে।

করোনার উপসর্গ থাকায় হাসপাতালে ভর্তি করা হল বিধাননগর পুরনিগম এলাকার তিন বাসিন্দাকে। স্বাস্থ্য পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত এই তিন জনের মধ্যে দু’জন মহিলা, একজন পুরুষ। তিন জনই করোনা মোকাবিলায় লড়াই করেছেন। দু’জনের বাড়ি কৈখালি এলাকায় ও এক জন সল্টলেকের বাসিন্দা বলে পুরনিগম সূত্রের খবর।

পুরনিগম সূত্রে জানা গিয়েছে, কৈখালির যে দু’জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে, তাঁরা চিনার পার্কের একটি হাসপাতালের কর্মী। ৩৩ বছর বয়সি এক মহিলা তিন বছর ধরে ওই হাসপাতালে নার্সের কাজ করছেন এবং ৪৪ বছরের এক ব্যক্তি ওই হাসপাতালেরই ম্যানেজমেন্ট বিভাগের কর্মী।



Source link