স্বামী-স্ত্রীর সহবাসে আনন্দ হয় কেন

0
81
স্বামী-স্ত্রীর সহবাসে আনন্দ হয় কেন
স্বামী-স্ত্রীর সহবাসে আনন্দ হয় কেন
Print Friendly, PDF & Email

স্বামী-স্ত্রীর সহবাসে আনন্দ হয় কেন

স্বামী-স্ত্রীর সহবাস- স্বামী-স্ত্রীর যৌনমিলনের সময় যৌনাঙ্গের সংস্পর্শে সুখানুভুতিজনিত কারণে মানসিক পরিবর্তন দেখা যায়। আল্লাহ তাআলার সৃষ্টি রহস্য এমনি যে, স্ত্রীলোকের যৌনাঙ্গ এক রকম স্পর্শ সুখানুভুতি তন্ত্র দ্বারা তৈরী করা হয়েছে, তাতে পুরুষের যৌনাঙ্গ প্রবেশ করার সঙ্গে সঙ্গে আশাতীত আনন্দের দোলায় দোলায়িত হয়ে উঠে। মৃদু উষ্ণ পিচ্ছিল কোমল যোনিনালীর স্পর্শে পুরুষের উত্তেজনাকে বহুগুণ বাড়িয়ে দেয়। তখন পুরুষের লিন বার বার উঠা নামা করতে উৎসাহিত হয়।

স্বামী-স্ত্রীর সহবাসে আনন্দ হয় কেন

স্ত্রীলোকেরও এই ধরণের হয়ে থাকে। তাদের যোনিপথে পুংলিঙ্গ প্রবেশ করা মাত্র কামাদ্রি প্রবেশ, ভগাঙ্কুর ও যোনিনালীতে এক ধরণের স্বর্গীয় সুখ লাভ করে থাকে। তখন তাদের অন্তরে এই বাসনা জাগরিত হয়ে থাকে যে, যোনিনালীতে দ্রুত লিঙ্গটা বার বার উঠা-নামা করলে অতি উত্তম হয়।

স্বামী-স্ত্রী পরস্পর যৌন মিলনের স্বারা যে সুখানুভুতি লাভ করে থাকে, এর মূল রহস্য কোথায় নিহিত? আল্লাহ তাআলা সৃষ্টি কৌশলের রহস্য অনুসন্ধান করলে বুঝা যাবে যে, দেহের যৌন অঙ্গ-প্রত্যঙ্গগুলোর উত্তেজনার পারস্পরিক ক্রিয়ার দম্পত্তির যৌনাঙ্গসমূহ ঐ ধরণের সুখানুভব করে থাকে।

নারী-পুরুষের কামোত্তেজনার উদ্রেক হলেই উহা দেহের সর্বত্র বিদ্যুতের মতো ছড়িয়ে যায়। তখন এই উত্তেজনার ধাক্কা চেতনার সাহায্য মস্তিঙ্কে সঞ্চারিত হয়ে সেখান হতে উহা ছড়িয়ে পড়ে উত্তেজক কেন্দ্রসমূহে। এই উত্তেজনা কেন্দ্র হতে অনুভূতি শক্তি যৌনাঙ্গ সমূহের ভিতরে সঞ্চারিত হয়ে থাকে। এই প্রকারে নর-নারীর যৌনাঙ্গ অতি মাত্রায় সক্রিয় হয়ে থাকে। আর এই সক্রিয়তার কারণেই নর-নারী অচিন্তনীয় সুখ আর আনন্দ পেয়ে থাকে।

স্বামী-স্ত্রী: স্বামীর সঙ্গে স্ত্রীর আচরণ যেমন হওয়া জরুরি

স্ত্রীর সৌনাঙ্গের ভিতরে পুংলিঙ্গের দ্রুত উত্থান পতনের কারণে স্ত্রী-অঙ্গের ভিতরে যে শিহুরণ জেগে থাকে, তার কারণে স্ত্রীলোকের যৌনাঙ্গে এ ধরণের অপূর্ব সুখের ছোয়া লেগে থাকে। এই সুখানুভবের জন্য তারা সটান পড়ে থাকে স্বামীর শুক্রাপাত না হওয়া পর্যন্ত।

সম্পূর্ণ নতুন আঙ্গিকে সহজ পদ্ধতিতে আরবি শিক্ষা | সহজ পদ্ধতিতে শিক্ষক ছাড়া কুরআন শিক্ষা

এই স্বর্গীয় সুখ সর্বাঙ্গ দ্বারা ভোগ করার জন্য কোনো কোনো স্ত্রীলোক পুরুষাঙ্গের উত্থান-পতনের সাথে সাথে তার যৌন প্রদেশও উচা নীচা করতে থাকে। এতে তারা চরম আনন্দ পেয়ে থাকে। এই স্বর্গীয় সুখের অনুভূতিকে তারা বিভিন্ন আকার ইঙ্গিতে স্বামীকে বুঝিয়ে থাকে। শেষ পর্যন্ত চরম আনন্দ ও অত্যাধিক তৃপ্তির মুহুর্তে যখন স্বামীর বীর্যপাত হয়ে থাকে তখনই শুধু দম্পত্তি আনন্দ ও তৃপ্তির পরিপূর্ণতা ভোগ করে থাকে।



চরম পুলকের সময় যৌনাঙ্গের অবস্থান স্বামী-স্ত্রী যৌন মিলনে রত অবস্থায় উত্তেজনা চরমে পৌছে যায়। সেই অবস্থায় পুরুষের অন্ডকোষ হতে শুক্রবাহী নলের ভিতর দিয়ে এক প্রকার রস পুরুষের মুত্রনালীতে বের হয়ে আসে এবং তার সাথে প্রটেষ্টগ্রন্থি হতেও এক প্রকার রস বের হয়ে মিশে শুক্রে পরিণত হয়ে অতি চঞ্চলিত রূপ ধারণ করে পুরুষের মুত্রনালী দিয়ে দ্রুতবেগে স্ত্রী জরায়ুতে পতিত হয়।

স্বামী-স্ত্রী: স্বামীর প্রতি স্ত্রীর কর্তব্য

এই সময় স্ত্রী অত্যাধিক পুলক লাভ করে এবং তার ভিতরের গ্রন্থিগুলো হতে প্রচুর রস বের হয়ে থাকে এবং ভগাঙ্কুর নাচতে থাকে। এটা ছাড়া জরায়ু মুখ ও যোনিনালী মৃদু কম্পিত অবস্থায় প্রসারিত হয়ে থাকে।

পুরুষের বীর্যপাতের পূর্ব মুহুর্তে লিঙ্গটা অত্যাধিক শক্ত হয়ে থাকে, তখন স্ত্রীর যৌনাঙ্গ বীর্য ধারণের জন্য অত্যন্ত আনন্দে উদ্ভাসিত হয়ে থাকে এবং এই মুহুর্তেই বীর্যপাত হয়ে থাকে। চরম আনন্দ ও তৃপ্তির অনুভূতিতে স্ত্রীর চোখদ্বয় বুঝে যায় এবং দুই হাতে স্বামীকে জড়িয়ে বুকের দিকে চেপে রাখে।

এর পরেই উভয়ে ক্লান্ত হয়ে যায় এবং কিছু সময় বিশ্রাম নেয়। এখানে লক্ষ্যনীয় যে, ক্ষেত্র বিশেষে দেখা যায়, স্ত্রীর চরম পুলক প্রাপ্তির আগে স্বামীর বীর্যপাত হয়ে যায়। এই অবস্থায় স্ত্রীর চরম আনন্দ ও তৃপ্তি পাওয়ার জন্য প্রয়োজনবোধে স্বামী পুনঃসঙ্গমে লিপ্ত হবে।


আরো পড়ুন

সাদাকাতুল ফিতর কী এবং সাদাকাতুল ফিতরের পরিমাণ : কিছু কথা (ভিডিও সহ)

ইতিকাফের বিভিন্ন মাসয়ালা মাসায়েল জেনে নিন ( ভিডিও সহ )

রূহের  অবস্থান-  কিতাবুর রূহ্  এর বর্ণনা

রোজার মাসয়ালা-মাসায়েল জেনে নিন

চল্লিশ হাদিস মুখস্ত করার ফযিলত পর্ব-২


মানুষের উপর জিনের আছর : কারণ, প্রতিকার ও সুরক্ষার উপায়

একজন অভিজ্ঞ ডাক্তারের কাছে বসা ছিলাম। তার স্ত্রীও একজন ভাল ডাক্তার। উভয়ে ধর্মপ্রাণ। হজ করেছেন এক সাথেই। দুটো মেয়েকেই তানজীমুল উম্মাহ মাদরাসাতে ভর্তি করিয়েছেন। আমাকে বললেন, তানজীমুল উম্মাহ মাদরাসা আরবী মিডিয়ামের স্কলাস্টিকা তাই না? আমি বললাম, হ্যা। উদ্দেশ্য তার উৎসাহকে স্বাগত জানানো। মানে তারা দুটো সন্তানকেই মাদরাসায় ভর্তি করিয়ে গর্ববোধ করেন। কতখানি ধর্মপ্রাণ হলে এমন হতে পারে তা আপনার ভেবে দেখার বিষয় বটে। রোগী দেখার ফাঁকে ফাঁকে আমার সাথে গল্প করছেন। শুধু আমার সাথেই নয়। আলেম-উলামাদের কাউকে কাছে পেলে আন্তরিকতার সাথেই আলাপ করেন। জানতে চান। জানাতে চান।


স্বাভাবিক পদ্ধতির বরখেলাপ স্ত্রী-সহবাস করা

Your 250x250 Banner Code