নগরজুড়ে ৯ ম্যাজিস্টেটের অভিযান, দেড় লাখ টাকা দন্ড

0
11
Print Friendly, PDF & Email

চট্টগ্রাম নগরীর বিভিন্ন স্থানে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত ও নিত্যপ্রেয়োজনীয় পণ্যের মূল্য নিয়ন্ত্রণে অভিযান চালিয়েছে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন। অভিযানে ৬৯টি মামলায় ১ লাখ ৪৬ হাজার ৬০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

শনিবার (০২ মে) দিনভর অভিযান পরিচালনা করেন জেলা প্রশাসনের ৯জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট গালিব চৌধুরী নেতৃত্বে পরিচালিত অভিযানে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে দোকান খোলা রাখার দায়ে বন্দর, ইপিজেড ও পতেঙ্গা থানা এলাকায় ১টি সেলুন, ১টি কাপড়ের দোকান, ৩টি টেইলার্স, ১টি হার্ডওয়ারের দোকানকে ৫০০ টাকা করে মোট ৩ হাজার টাকা, ১টি লন্ড্রি দোকানকে ৩০০, নির্মাণ সামগ্রী বিক্রয় প্রতিষ্ঠানকে ২ হাজার, বন্দর থানার ঈশান মিস্ত্রীহাট কাঁচাবাজারের মেসার্স সোনালি ট্রেডার্সকে ২ হাজার, কর্ণফুলী ট্রেডার্সকে ২ হাজার, কলসি দিঘীর পাড় কাঁচাবাজারের মাহবুব স্টোরকে ৩ হাজার, পতেঙ্গা থানার কাটগড় বাজারের রিদওয়ান স্টোরকে ৩ হাজার টাকা জরিমানাসহ মোট ১২ মামলায় ১৫ হাজার ৩০০ টাকা জরিমানা করা হয়।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আলী হাসানের নেতৃত্বে পরিচালিত অভিযানে চাক্তাই এলাকায় ২টি সেলুন ও টেইলার্স খোলা থাকায় ১ হাজার টাকা, চকবাজার, সদরঘাট ও ফিরিঙ্গীবাজার এলাকায় মূল্য তালিকা না থাকার দায়ে ৭টি মুদি দোকানকে ১০ হাজার ৩০০ টাকাসহ মোট ৯টি মামলায় ১১ হাজার ৩০০ টাকা জরিমানা করা হয়।

এছাড়া খুলশী, পাঁচলাইশ ও চান্দগাঁও, বায়েজিদ এলাকায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সুরাইয়া ইয়াসমিনের নেতৃত্ব অভিযান পরিচালিত হয়। অভিযানের সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে দোকান খোলা রাখায় ১টি সেলুনকে ১ হাজার, ৪টি টেইলারের দোকানকে ২ হাজার, ২টি হার্ডওয়ারের দোকানকে ২ হাজার, ১টি ক্রোকারিজের দোকানকে ৫০০ টাকা, ১টি এলুমিনিয়ামের দোকানকে ৫ হাজার, বায়েজিদ থানা কাঁচাবাজারের ২টি দোকানকে ৪ হাজার টাকাসহ মোট ১১টি মামালায় ১৪ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

এছাড়া, ঈদগাঁ এলাকায় আবিদ কমপ্লেক্স মার্কেটে দোকান খোলা রাখার দায়ে ২টি দোকানকে ১ হাজার, দক্ষিণ পাহাড়তলীতে ২টি দোকানকে ১ হাজার ৫০০, ১টি সেলুনকে ২০০, আকবরশাহ থানা এলাকায় একটি এলুমিনিয়াম দোকানকে ৫ হাজার টাকাসহ ৬টি মামলায় ৭ হাজার ৭০০ টাকা জরিমানা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাজী তাহমিনা সারমিন।

অন্যদিকে, আগ্রাবাদ, চৌমুহনী এলাকার কর্ণফুলী মার্কেটে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. তৌহিদুল ইসলামের নেতৃত্বে অভিযানে কর্ণফুলী মার্কেটে মূল্যতালিকা না থাকায় ১০ হাজার, আগ্রাবাদ কর্ণফুলী মার্কেটের কাঁচাবাজারে মূল্য তালিকা না থাকায় মার্কেটের দোকান মালিক সমিতিকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। অভিযানে কাঁচাবাজারে চড়া দামে কাঁচা মরিচ বিক্রির অভিযোগে এক সবজি বিক্রেতাকে ২ হাজার টাকাসহ মোট ২২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

বন্দর, ইপিজেড, পতেঙ্গা এলাকায় অভিযান চালিয়েছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. উমর ফারুক। তিনি বিভিন্ন অপরাধে ৭টি মামালায় ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

অপর একটি অভিযানে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আশরাফুল আলম নগরীর বাকলিয়া, সদরঘাট, কোতোয়ালি এলাকায় বিভিন্ন অনিয়ম ও অপরাধের জন্য জরিমানা করেন ৮ হাজার ৫০০ টাকা।

নগরীর হালিশহর, পাহাড়তলি, ডবলমুরিং, আকবরশাহ এলাকায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রেজওয়ানা আফরিনের নেতৃত্বে অভিযান পরিচালিত হয়। অভিযানে ২টি ডিপার্টমেন্টাল স্টোরকে ২ হাজার, সামাজিক দূরত্ব বজায় না রাখায় তিন ব্যক্তিকে ৩০০ টাকাসহ ৩টি মামলায় ২ হাজার ৩০০ টাকা জরিমানা করা হয়।

এছাড়া, পাঁচলাইশ, খুলশী, বায়েজিদ, চান্দগাঁও এলাকায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শিরীন আক্তারের নেতৃত্বে অভিযান পরিচালিত অভিযানে অতিরিক্ত মূল্য পণ্য বিক্রি দায়ে ৪টি মামলায় ৫৫ হাজা টাকা জরিমানা আদায় করেন।

সিএম/এসএ



Source link