ছুটি বাড়ছে ১৫ মে পর্যন্ত: প্রধানমন্ত্রী

0
17
Print Friendly, PDF & Email

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, এরইমধ্যে আমরা ৫ মে পর্যন্ত ছুটি ঘোষণা করেছি। সেটিকে আমরা ১৫ মে পর্যন্ত বাড়াতে চাচ্ছি। নিজেকে সুরক্ষিত করতে হবে পাশাপাশি অপরকে সুরক্ষিত করতে এ সব কর্মকাণ্ড পরিচালনা করার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

চলমান করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে সোমবার (৪ এপ্রিল) সকালে রংপুর বিভাগের আট জেলার কর্মকর্তাদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে মতবিনিময়কালে তিনি একথা জানান।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘এখানে ব্যবসা-বাণিজ্য সবকিছু যেহেতু একটু থমকে গিয়েছিল। এরইমধ্যে আমরা ছুটি ঘোষণা দিয়েছি ৫ই মে পর্যন্ত ঘোষণা দিয়েছিলাম। সেটাকে আমরা ১৫ই মে পর্যন্ত বৃদ্ধি করতে চাচ্ছি। কিন্তু সবকিছু যেহেতু রমজান মাস। এ রমজানে মাসে যাতে কেনাবেচা চলতে পারে। তার জন্য দোকান-পাঠ খোলা বা যেহেতু রোজার সময়, ঈদের কেনা বা সেহরি খাওয়া বা রোজার মাসে বাজারহাট করা, সেগুলো যাতে চলতে পারে, সেদিকে আমরা বিশেষভাবে দৃষ্টি রেখে সেগুলোর খোলারও মানে চালু রাখারও নির্দেশ দিয়ে দিয়েছি। আর প্রতিটি জেলায় জেলাভিত্তিক যে সমস্ত ছোটখাট ক্ষুদ্র শিল্প রয়ে গেছে সেগুলো তারা চালাতে পারবেন, সেইভাবে আমরা নির্দেশনা দিয়েছি।’

তিনি বলেন, করোনার কারণে সারা বিশ্বের অর্থনীতি থমকে দাঁড়িয়েছে। এর প্রভাবে দেশের মানুষ যাতে ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সেটাই আমাদের লক্ষ্য। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গাইডলাইন অনুসরণ করে সব পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে বলেও জানান শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, করোনা মোকাবেলায় ২ হাজার চিকিৎসক ও ৬ হাজার নার্স নিয়োগ দেয়া হচ্ছে। এরই মধ্যে ৫ হাজার নার্স নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

শেখ হাসিনা আরও বলেন, খাদ্য সংকট মোকাবেলায় ২১ লাখ টন খাদ্য সংগ্রহ করা হবে। চাষের যোগ্য এক ইঞ্চি জায়গায়ও অনাবাদী না রাখার আহ্বান জানান তিনি।

করোনার সময়ে তরুণদের চায়ের দোকানে আড্ডা না দেয়ার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

এছাড়া তিনি দেশবাসীকে ঈদের আগাম শুভেচ্ছা জা‌নিয়েছে বলেন, সময় হলে ঈদের কেনাকাটা করার সুযোগ করে দেওয়া হবে। এবারের পবিত্র রমজান মাস একটু ভিন্নভাবে পালন হচ্ছে।

আরএ/এসএইচ



Source link