কুরবানীর উপর ৬৫ টি গুরুত্বপূর্ণ মাসআলা

87 / 100

Table of Contents (সূচিপত্র)

কুরবানীর ৬৫ টি মাসআলা

–এনামুল হক শিকদার


কুরবানী একটি ঐতিহাসিক স্মৃতিময় আমল।আল্লাহ বলেন فصل لربك وانحر হে নবী! আপনি আপনার রবের উদ্দেশ্যে নামাজ পড়ুন আর নহর (কুরবানী) করুন।
কুরবানী একটি গুরুত্বপূর্ণ মালী ইবাদত। এটি আদায় করা واجب ( ওয়াজিব)।
সামর্থ্য থাকা সত্ত্বেও যে ব্যক্তি এই ইবাদত পালন করে না, তার ব্যাপারে রাসুলুল্লাহ সঃ বলেছেন من وجد سعة ولم يضح فلا يقربن مصلانا, ‘যার কুরবানীর সামর্থ্য আছে কিন্তু কুরবানী করে না সে যেন আমাদের ঈদগাহে না আসে।’-مستدرك حاكم, হাদীস নং ৩৫১৯; الترغيب والترهيب ২/১৫৫
ইমাম আজম আবু হানিফা রহঃ ও ইমাম আওযায়ীসহ জমহুরদের মতে কুরবানী সামর্থবান স্বাধীন বয়স্ক মুসলিম ব্যক্তির জন্য ওয়াজিব।
ইবাদতের মূলকথা হল আল্লাহ তায়ালার اطاعت বা আনুগত্য এবং তাঁর রেজামন্দি লাভ করা। তাই যেকোনো ইবাদতের পূর্ণতার জন্য দুটি বিষয় জরুরি। এক. اخلاص তথা একমাত্র আল্লাহর সন্তুষ্টির উদ্দেশ্যে পালন করা এবং দুই. শরীয়তের নির্দেশনা মোতাবেক মাসায়েল অনুযায়ী সম্পাদন করা। এ উদ্দেশ্যে এখানে কুরবানীর কিছু জরুরি মাসায়েল প্রশ্নোত্তর আকারে উল্লেখ করলাম।

১। প্রশ্ন :কার উপর কুরবানী ওয়াজিব?

“””””””””””””””””””””””””””””””””””””
: مكلف بالشرع সুস্থমস্তিষ্ক সম্পন্ন প্রাপ্ত বয়স্ক প্রত্যেক মুসলিম নর-নারী, যে ১০ যিলহজ্ব ফজর থেকে ১২ যিলহজ্ব সূর্যাস্ত পর্যন্ত সময়ের মধ্যে প্রয়োজন অতিরিক নেসাব পরিমা সম্পদের মালিক হবে তার উপর কুরবানী ওয়াজিব। টাকা-পয়সা, সোনা – রূপার অলঙ্কার, বসবাস ও খোরাকির প্রয়োজনে আসে না এমন জমি, প্রয়োজন অতিরিক্ত বাড়ি অপ্রয়োজনীয় সকল আসবাবপত্র কুরবানীর নেসাবের ক্ষেত্রে হিসাব করতে হবে।

আর নিসাব হল স্বর্ণের ক্ষেত্রে সাড়ে সাত (৭.৫) ভরি, রূপার ক্ষেত্রে সাড়ে বায়ান্ন (৫২.৫) ভরি, টাকা-পয়সা ও অন্যান্য বস্ত্তর ক্ষেত্রে নিসাব হল এর মূল্য সাড়ে বায়ান্ন তোলা রূপার মূল্যের সমপরিমাণ হওয়া। আর সোনা বা রূপা কিংবা টাকা-পয়সা এগুলোর কোনো একটি যদি পৃথকভাবে নেসাব পরিমাণ না থাকে কিন্তু প্রয়োজন অতিরিক্ত একাধিক বস্ত্ত মিলে সাড়ে বায়ান্ন তোলা রূপার মূল্যের সমপরিমাণ হয়ে যায় , তাহলেও তার উপর কুরবানী করা ওয়াজিব।-المحيط البرهانى ৮/৪৫৫; تاتارخانبة ১৭/৪০৫



কুরবানীর উপর ৬৫ টি গুরুত্বপূর্ণ মাসআলা

২। প্রশ্ন: নেসাবের মেয়াদ কতদিন থাকতে হবে?
“”””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর: কুরবানীর নেসাব পুর্ণবছর থাকা জরুরি নয় বরং কুরবানীর তিন দিনের মধ্যে যে কোনো দিন থাকলেই কুরবানী ওয়াজিব হবে।
1 بدائع الصنائع৪/১৯৬,
2 رد المحتار ৬/৩১২
৩। প্রশ্ন: কতদিন কুরবানী করা যায়?
“”””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : মোট তিনদিন কুরবানী করা যায়। যিলহজ্বের ১০, ১১ ও ১২ তারিখ সূর্যাস্ত পর্যন্ত। তবে সম্ভব হলে যিলহজ্বের ১০ তারিখেই কুরবানী করা উত্তম। –
1 المؤطا ১৮৮,
2 بدائع الصنائع ৪/১৯৮,
3 الهندية ৫/২৯৫
৪। প্রশ্ন: মুসাফিরের কুরবানীর হুকুম কী?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : যে ব্যক্তি কুরবানীর দিনগুলোতে মুসাফির থাকবে (অর্থাৎ ৪৮ মাইল বা প্রায় ৭৮ কিলোমিটার দূরে যাওয়ার নিয়তে নিজ এলাকা ত্যাগ করেছে) তার উপর কুরবানী ওয়াজিব নয়। قاضيخان ৩/৩৪৪, بدائع ৪/১৯৫, الدر المختار ৬/৩১৫
৫। প্রশ্ন : নাবালেগের কুরবানীর হুকুম কি?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : নাবালেগ শিশু-কিশোর তদ্রূপ যার আকল ঠিক নাই , নেসাবের মালিক হলেও তাদের উপর কুরবানী ওয়াজিব নয়। অবশ্য তার অভিভাবক নিজ সম্পদ দ্বারা তাদের পক্ষে কুরবানী করলে তা মুস্তাহাব হিসাবে সহীহ হবে।-بدائع ৪/১৯৬, رد المحتار ৬/৩১৬
৬।প্রশ্ন: গরীব মিসকিনের কুরবানীর হুকুম কী?
“”””””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : গরিব মিসকিন ব্যক্তির উপর কুরবানী করা ওয়াজিব নয়; কিন্তু সে যদি কুরবানীর নিয়তে কোনো পশু কিনে তাহলে তা কুরবানী করা ওয়াজিব হয়ে যায়لان اوجب على نفسه । بدائع ৪/১৯২
৭। প্রশ্ন: কুরবানী করতে না পারার হুকুম কী?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : কেউ যদি কুরবানীর দিনগুলোতে ওয়াজিব কুরবানী দিতে না পারে তাহলে কুরবানীর পশু ক্রয় না করে থাকলে তার উপর কুরবানীর উপযুক্ত একটি ছাগলের মূল্য সদকা করা ওয়াজিব। আর যদি পশু ক্রয় করে ছিল, কিন্তু কোনো কারণে কুরবানী দেওয়া না হয় তাহলে ঐ পশু জীবিত সদকা করে দিবে।-بدائع ৪/২০৪, قاضيخان ৩/৩৪৫
৮। প্রশ্ন: প্রথম দিন কোন্ সময় থেকে কুরবানী করতে হবে ?
“””””””””””””””:”””””””””””””””””””””””””
উত্তর : যেসব এলাকার লোকদের উপর জুমা ও ঈদের নামায ওয়াজিব তাদের জন্য ঈদের নামাযের আগে কুরবানী করা জায়েয নয়। অবশ্য বৃষ্টিবাদল বা অন্য কোনো ওজরে যদি প্রথম দিন ঈদের নামায না হয় তাহলে ঈদের নামাযের সময় চলে যাবার পর প্রথম দিনেও কুরবানী করা জায়েয।-صحيح البخارى ২/৮৩২, قاضيخان ৩/৩৪৪, الدر المختار ৬/৩১৮
৯। প্রশ্ন : রাতে কুরবানী করা যায়েজ আছে কিনা?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””

উত্তর : ১০.১১ও ১২ তারিখ দিবাগত রাতেও কুরবানী করা জায়েয। তবে দিনে কুরবানী করাই ভালো কেননা রাতে কুরবানী করলে আলোস্বল্পতায় জবেহ ত্রুটিপূর্ণ হতে পারে। مسند احمد, হাদীস নং : ১৪৯২৭; مجمع الزوائد ৪/২২, الدر المختار ৬/৩২০, قاضيخان ৩/৩৪৫, بدائع ৪/২২৩


১০। প্রশ্ন: কুরবানীর জন্য কেনা পশু সময়ের পর যবেহ করলে কি করতে হবে?
‘””””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : কুরবানীর দিনগুলোতে যদি জবেহ করতে না পারে তাহলে খরিদকৃত পশুই সদকা করে দিতে হবে। তবে যদি (সময়ের পরে) জবেহ করে ফেলে তাহলে পুরো গোশত সদকা করে দিতে হবে কুরবানী দাতা খেতে পারবে না। এক্ষেত্রে গোশতের মূল্য যদি জীবিত পশুর চেয়ে কমে যায় তাহলে যে পরিমাণ মূল্য কমলো তা-ও সদকা করতে হবে।-بدائع ৪/২০২, الدر المختار ৬/৩২০-৩২১
১১। উত্তর : কোন্ কোন্ পশু দ্বারা কুরবানী করা যাবে?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””””””

উত্তর : উট, গরু, মহিষ, ছাগল, ভেড়া , দুম্বা তথা মেষ জাতীয় চতুস্পদ হালাল গৃহপালিত পশু দ্বারা কুরবানী করা জায়েয। এসব গৃহপালিত পশু ছাড়া অন্যান্য পশু যেমন হরিণ, বনগরু ইত্যাদি দ্বারা কুরবানী করা জায়েয নয়। قاضيخان ৩/৩৪৮, بدائع ৪/২০৫



১২। প্রশ্ন: নর ও মাদী পশুর কুরবানীর হুকুম কি?
“”””””””””””””””:”””::””””””””””””””””
উত্তর : যেসব পশু কুরবানী করা জায়েয সেগুলোর নর-মাদী দুটোই কুরবানী করা যায়। -قاضيخان ৩/৩৪৮, بدائع ৪/২০৫
১৩। প্রশ্ন: কুরবানীর পশুর বয়সসীমা কত হতে হবে?
“”””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : উট কমপক্ষে ৫ বছরের হতে হবে। গরু ও মহিষ কমপক্ষে ২ বছর হতে হবে। আর ছাগল, ভেড়া ও দুম্বা (মেষ)কমপক্ষে ১ বছরের হতে হবে। তবে ভেড়া ও দুম্বা যদি ১ বছরের কিছু কমও হয়, কিন্তু এমন হৃষ্টপুষ্ট হয় যে, দেখতে এক বছরের মতো মনে হয়, তাহলে তা দ্বারাও কুরবানী করা জায়েয। অবশ্য এক্ষেত্রে কমপক্ষে ৬ মাস বয়সের হতে হবে।
উল্লেখ্য, ছাগলের বয়স ১ বছরের কম হলে কোনো অবস্থাতেই তা দ্বারা কুরবানী জায়েয হবে না।قاضيخان ৩/৩৪৮, بدائع ৪/২০৫-২০৬
১৪। প্রশ্ন: এক প্রাণীতে কতজন শরীক হতে পারে?
“”””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর: একটি ছাগল, ভেড়া বা দুম্বা দ্বারা শুধু একজনই কুরবানী দিতে পারবে। এমন একটি পশু কয়েকজন মিলে কুরবানী করলে কারোটাই সহীহ হবে না।

আর উট, গরু, মহিষে সর্বোচ্চ সাত জন শরীক হতে পারবে। সাতের অধিক শরীক হলে কারো কুরবানী সহীহ হবে না। – صحيح مسلم ১৩১৮, مؤطا الامام مالك ১/৩১৯, قاضيخان ৩/৩৪৯, بدائع ৪/২০৭-২০৮



১৫। প্রশ্ন: সাত শরীকের কুরবানীর মাসআলা কি?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর :. সাতজনে মিলে কুরবানী করলে সবার অংশ সমান হতে হবে। কারো অংশ এক সপ্তমাংশের কম হতে পারবে না। যেমন কারো আধা ভাগ, কারো দেড় ভাগ। এমন হলে কোনো শরীকের কুরবানীই সহীহ হবে না। – بدائع ৪/২০৭
উট, গরু, মহিষ সাত ভাগে এবং সাতের কমে যেকোনো সংখ্যা যেমন দুই, তিন, চার, পাঁচ ও ছয় ভাগে কুরবানী করা জায়েয। -مسلم ১৩১৮, بدائع ৪/২০৭
১৬। প্রশ্ন: কোনো শরীকের বদ নিয়ত থাকলে কী হবে?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : . যদি কেউ আল্লাহ তাআলার হুকুম পালনের উদ্দেশ্যে কুরবানী না করে শুধু গোশত খাওয়ার নিয়তে কুরবানী করে তাহলে তার কুরবানী সহীহ হবে না। তাকে অংশীদার বানালে শরীকদের কারো কুরবানী হবে না। তাই অত্যন্ত সতর্কতার সাথে শরীক নির্বাচন করতে হবে।
بدائع ৪/২০৮, قاضيخان ৩/৩৪৯
১৭। প্রশ্ন: কুরবানীর পশুতে আকীকার অংশ রাখা যাবে কিনা?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : কুরবানীর গরু, মহিষ ও উটে আকীকার নিয়তে শরীক হতে পারবে। এতে কুরবানী ও আকীকা দুটোই সহীহ হবে।-طحطاوى على الدر ৪/১৬৬, رد المحتار ৬/৩৬২
#. শরীকদের কারো পুরো বা অধিকাংশ উপার্জন যদি হারাম হয় তাহলে কারো কুরবানী সহীহ হবে না।
# : যদি কেউ গরু, মহিষ বা উট এককভাবে কুরবানী দেওয়ার নিয়তে কিনে আর সে ধনী হয় তাহলে ইচ্ছা করলে অন্যকে শরীক করতে পারবে। তবে এক্ষেত্রে একা কুরবানী করাই শ্রেয়। শরীক করলে সে টাকা সদকা করে দেওয়া উত্তম। আর যদি ওই ব্যক্তি এমন গরীব হয়, যার উপর কুরবানী করা ওয়াজিব নয়, তাহলে সে অন্যকে শরীক করতে পারবে না। এমন গরীব ব্যক্তি যদি কাউকে শরীক করতে চায় তাহলে পশু ক্রয়ের সময়ই নিয়ত করে নিবে।-قاضيخان ৩/৩৫০-৩৫১, بدائع ৪/২১০
১৮। প্রশ্ন: কুরবানীর উত্তম পশু কীরূপ হতে হবে?
“”””””””””””””””””””””””””:””””””””””””””
উত্তর : কুরবানীর পশু মোটা তাজা হওয়া উত্তম।-مسند احمد৬/১৩৬, عالمغيرية ৫/৩০০, بدائع ৪/২২৩
১৯। প্রশ্ন: হাটতে পারেনা এমন পশু দ্বারা কুরবানী যায়েজ কিনা?
“”””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : যে পশু তিন পায়ে চলে, এক পা মাটিতে রাখতে পারে না বা ভর করতে পারে না এমন পশুর কুরবানী জায়েয নয়। ترمزى ১/২৭৫, سنن ابى داؤد ৩৮৭, بدائع ৪/২১৪, رد المحتار৬/৩২৩,عالمغيرية ৫/২৯৭
২০। প্রশ্ন: রোগা ও দুর্বল পশু কুরবানী করা যাবে কিনা?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””””

উত্তর : এমন শুকনো দুর্বল পশু, যা জবাইয়ের স্থান পর্যন্ত হেঁটে যেতে পারে না তা দ্বারা কুরবানী করা জায়েয নয়। ترمزى ১/২৭৫,عالمغيرية ৫/২৯৭, بدائع ৪/২১৪



২১। প্রশ্ন: দাঁতবিহীন পশু দ্বারা কুরবানী বৈধ কিনা?

“””””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : যে পশুর একটি দাঁতও নেই বা এত বেশি দাঁত পড়ে গেছে যে, ঘাস বা খাদ্য চিবাতে পারে না এমন পশু দ্বারাও কুরবানী করা জায়েয নয়। -بدائع৪/২১৫,عالمغيرية ৫/২৯৮
22। প্রশ্ন: শিংবিহীন পশু দ্বারা কুরবানীর হুকুম কী?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : যে পশুর শিং একেবারে গোড়া থেকে ভেঙ্গে গেছে, ফলে মস্তিষ্ক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সে পশুর কুরবানী জায়েয নয়। আর যে পশুর অর্ধেক শিং বা কিছু শিং ফেটে বা ভেঙ্গে গেছে বা শিং একেবারে উঠেইনি সে পশু কুরবানী করা জায়েয। -ترمزى ১/২৭৬, سنن ابى داؤد ৩৮৮, بدائع ৪/২১৬
২৩। প্রশ্ন: অন্ধ পশু দ্বারা কুরবানীর হুকুম কী?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : যে পশুর দুটি চোখই অন্ধ বা এক চোখ পুরো নষ্ট সে পশু কুরবানী করা জায়েয নয়। -جامع ترمزى ১/২৭৫, قاضيخان ৩/৩৫২
২৪। প্রশ্ন: কান বা লেজ কাটা পশু দ্বারা কুরবানীর হুকুম কি?
“”””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : যে পশুর লেজ বা কোনো কান অর্ধেক বা তারও বেশি কাটা সে পশুর কুরবানী জায়েয নয়। আর যদি অর্ধেকের বেশি থাকে, তাহলে তার কুরবানী জায়েয। তবে জন্মগতভাবেই যদি কান ছোট হয় তাহলে অসুবিধা নেই। -ترمزى১/২৭৫, مسند احمد১/৬১০, قاضيخان ৩/৩৫২,عالمغيرية ৫/২৯৭-২৯৮
২৫। প্রশ্ন: নতুন পশু ক্রয়ের পর হারানোটা পাওয়া গেলে কী করবে?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : কুরবানীর পশু হারিয়ে যাওয়ার পরে যদি আরেকটি কেনা হয় এবং পরে হারানোটিও পাওয়া যায় তাহলে কুরবানীদাতা গরীব হলে (যার উপর কুরবানী ওয়াজিব নয়) দুটি পশুই কুরবানী করা ওয়াজিব। আর ধনী হলে কোনো একটি কুরবানী করলেই হবে। তবে দুটি কুরবানী করাই উত্তম। -بيهقى ৫/২৪৪, بدائع ৪/১৯৯, قاضيخان ৩/৩৪৭
২৬। প্রশ্ন: গর্ভবতী (গাভিন)পশু দ্বারা কুরবানীর হুকুম
“””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : গর্ভবতী পশু কুরবানী করা জায়েয। জবেহের পর যদি বাচ্চা জীবিত পাওয়া যায় তাহলে সেটাও জবেহ করতে হবে। তবে প্রসবের সময় আসন্ন হলে সে পশু কুরবানী করা মাকরূহ। قاضيخان ৩/৩৫০
২৭। প্রশ্ন: পশু কেনার পর ত্রুটি দেখা দিলে কী করবে?
“”””””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : কুরবানীর নিয়তে ভালো পশু কেনার পর যদি তাতে এমন কোনো দোষ দেখা দেয় যে কারণে কুরবানী জায়েয হয় না তাহলে ওই পশুর কুরবানী সহীহ হবে না। এর স্থলে আরেকটি পশু কুরবানী করতে হবে। তবে ক্রেতা গরীব হলে ত্রুটিযুক্ত পশু দ্বারাই কুরবানী করতে পারবে। -خلاصة; ৪/৩১৯, بدائع: ৪/২১৬ رد المحتار: ৬/৩২৫
২৮।প্রশ্ন :পশুর বয়সের ব্যাপারে বিক্রেতার কথা মানা যাবে কিনা?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : যদি পশু বিক্রেতা কুরবানীর পশুর বয়স পূর্ণ হয়েছে বলে স্বীকার করে আর পশুর শরীরের অবস্থা দেখেও তাই মনে হয় তাহলে বিক্রেতার কথার উপর নির্ভর করে পশু কেনা এবং তা দ্বারা কুরবানী করা যাবে।
২৯। প্রশ্ন: বন্ধ্যা পশু দ্বারা কুরবানী করা যাবে?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : বন্ধ্যা পশুর কুরবানী জায়েয। – رد المحتار৬/৩২৫
৩০। প্রশ্ন: নিজের কুরবানীর পশু নিজে জবেহ করা কী?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর :. কুরবানীর পশু নিজে জবেহ করা উত্তম। নিজে না পারলে অন্যকে দিয়েও জবেহ করাতে পারবে। এক্ষেত্রে কুরবানীদাতা পুরুষ হলে জবেহের স্থলে তার উপস্থিত থাকা ভালো। مسند احمد ২২৬৫৭, بدائع ৪/২২২-২২৩, عالمغيرية ৫/৩০০
৩১। প্রশ্ন :জবেহের কাজে একাধিক ব্যক্তি শরীক হলে কী করবে?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : অনেক সময় জবেহকারীর জবেহ সম্পন্ন হয় না, তখন কসাই বা অন্য কেউ জবেহ সম্পন্ন করে থাকে। এক্ষেত্রে অবশ্যই উভয়কেই নিজ নিজ যবেহের আগে ‘বিসমিল্লাহি আল্লাহু আকবার’ পড়তে হবে। যদি কোনো একজন না পড়ে তবে ওই কুরবানী সহীহ হবে না এবং জবাইকৃত পশুও হালাল হবে না। -رد المحتار ৬/৩৩৪
৩২। প্রশ্ন: কুরবানীর পশু থেকে জবেহের আগে উপকৃত হওয়া যাবে কিনা?
“”””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : কুরবানীর পশু কেনার পর বা নির্দিষ্ট করার পর তা থেকে উপকৃত হওয়া জায়েয নয়। যেমন হালচাষ করা, আরোহণ করা, পশম কাটা ইত্যাদি।সুতরাং কুরবানীর পশু দ্বারা এসব করা যাবে না। যদি করে তবে পশমের মূল্য, হালচাষের মূল্য ইত্যাদি সদকা করে দিবে।-مسند احمد ২/১৪৬, نيل الاوطار ৩/১৭২, قاضيخان ৩/৩৫৪,عالمغيرية ৫/৩০০
৩৩। প্রশ্ন: কুরবানীর পশুর দুধ পান করা যাবে কিনা?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর :কুরবানীর পশুর দুধ পান করা যাবে না। যদি জবাইয়ের সময় আসন্ন হয় আর দুধ দোহন না করলে পশুর কষ্ট হবে না বলে মনে হয় তাহলে দোহন করবে না। প্রয়োজনে ওলানে ঠান্ডা পানি ছিটিয়ে দেবে। এতে দুধের চাপ কমে যাবে। যদি দুধ দোহন করে ফেলে তাহলে তা সদকা করে দিতে হবে। নিজে পান করে থাকলে মূল্য সদকা করে দিবে। -احمد ২/১৪৬, اعلاء السنن১৭/২৭৭,رد المحتار ৬/৩২৯, قاضيخان ৩/৩৫৪, ৫/৩০১
৩৪। প্রশ্ন: কোনো শরীক মারা গেলে কী করতে হবে?
“”””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : কয়েকজন মিলে কুরবানী করার ক্ষেত্রে জবেহের আগে কোনো শরীকের মৃত্যু হলে তার ওয়ারিসরা যদি মৃতের পক্ষ থেকে কুরবানী করার অনুমতি দেয় তবে তা জায়েয হবে। নতুবা ওই শরীকের টাকা ফেরত দিতে হবে। অবশ্য তার স্থলে অন্যকে শরীক করা যাবে। -بدائع ৪/২০৯, در المختار৬/৩২৬, قاضيخان ৩/৩৫১
৩৫। প্রশ্ন: কুরবানীর পশুর বাচ্চা হলে কী করবে?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : কুরবানীর পশু বাচ্চা দিলে ওই বাচ্চা জবেহ না করে জীবিত সদকা করে দেওয়া উত্তম। যদি সদকা না করে তবে কুরবানীর পশুর সাথে বাচ্চাকেও জবেহ করবে এবং গোশত সদকা করে দিবে।
-قاضيان ৩/৩৪৯,عالمغيرية ৫/৩০১, رد المحتار ৬/৩২৩
৩৬। প্রশ্ন: মৃত ব্যক্তির পক্ষ থেকে কুরবানী করার হুকুম কী?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : মৃতের পক্ষ থেকে কুরবানী করা জায়েয। মৃত ব্যক্তি যদি ওসিয়ত না করে থাকে তবে সেটি নফল কুরবানী হিসেবে গণ্য হবে। কুরবানীর স্বাভাবিক গোশতের মতো তা নিজেরাও খেতে পারবে এবং আত্মীয়-স্বজনকেও দিতে পারবে। আর যদি মৃত ব্যক্তি কুরবানীর ওসিয়ত করে গিয়ে থাকে তবে এর গোশত নিজেরা খেতে পারবে না। গরীব-মিসকীনদের মাঝে সদকা করে দিতে হবে। -مسند احمد ১/১০৭, হাদীস নং ৮৪৫, رد المحتار ৬/৩২৬, قاضيخان ৩/৩৫২
৩৭। প্রশ্ন: কুরবানীর গোশত ফ্রিজিং করে রাখা যাবে কিনা?
“”””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর :. কুরবানীর গোশত তিনদিনেরও অধিক জমিয়ে রেখে খাওয়া জায়েয আছে।-بدائع ৪/২২৪, مسلم ২/১৫৯, مؤطا مالك ১/৩১৮, اعلاء السنن ১৭/২৭০
৩৮। প্রশ্ন: কুরবানীর গোশত বণ্টনের নিয়ম কী?
“”””””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : শরীকে কুরবানী করলে ওজন করে গোশত বণ্টন করতে হবে। অনুমান করে ভাগ করা জায়েয নয়।-الدر المختار ৬/৩১৭, قاضيخان ৩/৩৫১
# কুরবানীর গোশতের এক তৃতীয়াংশ গরীব-মিসকীনকে এবং এক তৃতীয়াংশ আত্মীয়-স্বজন ও পাড়া-প্রতিবেশীকে দেওয়া উত্তম। অবশ্য পুরো গোশত যদি নিজে রেখে দেয় তাতেও কোনো অসুবিধা নেই। بدائع ৪/২২৪, علمغيرية ৫/৩০০
৩৯। প্রশ্ন: গোশত, চর্বি বিক্রি করা যাবে কিনা?
“”””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : বর্তমানে কিছু লোক এসব বিক্রি করে থাকে। কুরবানীর গোশত, চর্বি ইত্যাদি বিক্রি করা জায়েয নয়। বিক্রি করলে পূর্ণ মূল্য সদকা করে দিতে হবে। তবে কোন গরীব লোক উহা দান হিসাবে পাওয়ার পর তা বিক্রি করলে যায়েজ হবে।اعلاء السنن ১৭/২৫৯, بدائع ৪/২২৫, قاضيخان ৩/৩৫৪,عالمغيرية ৫/৩০১
৪০। প্রশ্ন: জবেহকারীকে চামড়া, গোশত দেওয়া যাবে কিনা?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : জবেহকারী, কসাই বা কাজে সহযোগিতাকারীকে চামড়া, গোশত বা কুরবানীর পশুর কোনো কিছু পারিশ্রমিক হিসেবে দেওয়া জায়েয হবে না। অবশ্য পূর্ণ পারিশ্রমিক দেওয়ার পর পূর্বচুক্তি ছাড়া হাদিয়া হিসাবে গোশত বা তরকারী দেওয়া যাবে।
৪১। প্রশ্ন:জবেহের অস্ত্র কীরূপ হতে হবে?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : ধারালো অস্ত্র দ্বারা জবাই করা উত্তম ভোতা অস্ত্র দ্বারা মাকরূহ।-بدائع ৪/২২৩
৪২। প্রশ্ন: পশু নিস্তেজ হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে কিনা?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : জবাইয়ের পর পশু
নিস্তেজ হওয়ার আগে চামড়া খসানো বা অন্য কোনো অঙ্গ কাটা মাকরূহ। -بدائع ৪/২২৩
৪৩। প্রশ্ন: অন্য পশুর সামনে জবেহ করা ঠিক কিনা?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর :এক পশুকে অন্য পশুর সামনে জবেহ করবে না। জবেহের সময় প্রাণীকে অধিক কষ্ট দেওয়া ঠিক না।
৪৪। প্রশ্ন: কুরবানীর গোশত বিধর্মীকে দেওয়া যাবে কিনা?
“”””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : কুরবানীর গোশত হিন্দু ও অন্য ধর্মাবলম্বীকে দেওয়া জায়েয।
اعلاء السنن ৭/২৮৩,الهندية ৫/৩০০
৪৫। প্রশ্ন: অন্য কারো ওয়াজিব কুরবানী আদায় করতে চাইলে কী করবে?
“”””””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : অন্যের ওয়াজিব কুরবানী দিতে চাইলে ওই ব্যক্তির অনুমতি নিতে হবে। নতুবা ওই ব্যক্তির কুরবানী আদায় হবে না। অবশ্য স্বামী বা পিতা যদি স্ত্রী বা সন্তানের বিনা অনুমতিতে তার পক্ষ থেকে কুরবানী করে তাহলে তাদের কুরবানী আদায় হয়ে যাবে। তবে অনুমতি নিয়ে আদায় করা উত্তম।
৪৬। প্রশ্ন: কুরবানীর পশু চুরি হয়ে গেলে বা মরে গেলে কী করতে হবে?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর: কুরবানীর পশু যদি চুরি হয়ে যায় বা মরে যায় আর কুরবানীদাতার উপর পূর্ব থেকে কুরবানী ওয়াজিব থাকে তাহলে আরেকটি পশু কুরবানী করতে হবে। গরীব হলে (যার উপর কুরবানী ওয়াজিব নয়) তার জন্য আরেকটি পশু কুরবানী করা ওয়াজিব নয়।-بدائع ৪/২১৬, الخلاصة ৪/৩১৯
৪৭। প্রশ্ন: পাগল পশুর কুরবানীর হুকুম কী?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : পাগল পশু কুরবানী করা জায়েয। তবে যদি এমন পাগল হয় যে, ঘাস পানি দিলে খায় না এবং মাঠেও চরে না তাহলে তা দ্বারা কুরবানী জায়েয হবে না। -النهاية فى غريب الحديث ১/২৩০, بدائع ৪/২১৬
৪৮। প্রশ্ন : নিজের কুরবানীর গোশত খাওয়া যায় কিনা?
“”””””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর :. কুরবানীদাতার জন্য নিজ কুরবানীর গোশত খাওয়া মুস্তাহাব سورة الحج :২৮, مسلم ২২/১৫৯,مسلم হাদীস নং ৯০৭৮, بدائع ৪/২২৪
৪৯। প্রশ্ন: ঋণ করে কুরবানী করতে পারবে কিনা?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : কুরবানী ওয়াজিব এমন ব্যক্তিও ঋণের টাকা দিয়ে কুরবানী করলে ওয়াজিব আদায় হয়ে যাবে। তবে সুদের উপর ঋণ নিয়ে কুরবানী করা যাবে না।
৫০। প্রশ্ন: হাজীদের জন্য ঈদুল আযহার কুরবানীর হুকুম কী?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : যে সকল হাজী কুরবানীর দিনগুলোতে মুসাফির থাকবে তাদের উপর ঈদুল আযহার কুরবানী ওয়াজিব নয়। কিন্তু যে হাজী কুরবানীর কোনো দিন মুকীম থাকবে সামর্থ্যবান হলে তার উপর ঈদুল আযহার কুরবানী করা জরুরি হবে। -الهنديه ৫/২৯৩, الهنديةي৬/৩১৫, بدائع ৪/১৯৫, امداد الفتوى ২/১৬৬
৫১। প্রশ্ন : নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের পক্ষ থেকে কুরবানী করা যাবে কিনা?
“”””””””””””””””””””””:””””””””””””:””””উত্তর : সামর্থ্যবান ব্যক্তির রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের পক্ষ থেকে কুরবানী করা উত্তম। এটি বড় সৌভাগ্যের বিষয়ও বটে। নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আলী রা.কে তার পক্ষ থেকে কুরবানী করার ওসিয়্যত করেছিলেন। তাই তিনি প্রতি বছর রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের পক্ষ থেকেও কুরবানী দিতেন। -سنن ابى داود২/২৯, ترمزى ১/২৭৫, اعلاء السنن ১৭/২৬৮, مشكوة ৩/৩০৯
৫২। প্রশ্ন: কোন্ দিন কুরবানী করা উত্তম?
“””””””””””””””:”””””””””””””””””””””” “উত্তর: : তিন দিনের মধ্যে প্রথম দিন কুরবানী করা অধিক উত্তম। এরপর দ্বিতীয় দিন, এরপর তৃতীয় দিন। رد المحتار ৬/৩১৬
৫৩। প্রশ্ন: খাসীকৃত ছাগল ও বলদ গরু দ্বারা কুরবানী কর যাবে কিনা?
“”””””””””””””””””””””””””””””””””””””
:. খাসিকৃত ছাগল ও বলদ দ্বারা কুরবানী করা উত্তম। فتح القدير ৮/৪৯৮, مجمع الانهر ৪/২২৪, اعلاء السنن ১৭/৪৫৩
৫৪। প্রশ্ন :জীবিত ব্যক্তির নামে কুরবানী করা যাবে কিনা?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : যেমনিভাবে মৃতের পক্ষ থেকে ঈসালে সওয়াবের উদ্দেশ্যে কুরবানী করা জায়েয তদ্রূপ জীবিত ব্যক্তির পক্ষ থেকে তার ইসালে সওয়াবের জন্য নফল কুরবানী করা জায়েয। এ কুরবানীর গোশত দাতা ও তার পরিবারও খেতে পারবে।
৫৫। প্রশ্ন: বিদেশে অবস্থানরত ব্যক্তির কুরবানী অন্যত্র করার বিধান কী?
“”””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তম : বিদেশে অবস্থানরত ব্যক্তির জন্য নিজ দেশে বা অন্য কোথাও কুরবানী করা জায়েয।
৫৬। প্রশ্ন: কুরবানীদাতা ভিন্ন স্থানে থাকলে কখন জবেহ করবে?
“”””””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : কুরবানীদাতা এক স্থানে আর কুরবানীর পশু ভিন্ন স্থানে থাকলে কুরবানীদাতার ঈদের নামায পড়া বা না পড়া ধর্তব্য নয়; বরং পশু যে এলাকায় আছে ওই এলাকায় ঈদের জামাত হয়ে গেলে পশু জবেহ করা যাবে। -الدر المختار ৬/৩১৮
৫৭। প্রশ্ন: কুরবানীর চামড়া বিক্রির অর্থ সাদকা করা যাবে কিনা?
“”””””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : কুরবানীর চামড়া কুরবানীদাতা নিজেও ব্যবহার করতে পারবে। তবে কেউ যদি নিজে ব্যবহার না করে বিক্রি করে তবে বিক্রিলব্ধ মূল্য পুরোটা সদকা করা জরুরি। الدر المختار ৫/৩০১
৫৮। প্রশ্ন: কুরবানীর চামড়া বিক্রির নিয়ত করার কী হুকুম?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : কুরবানীর পশুর চামড়া বিক্রি করলে মূল্য সদকা করে দেওয়ার নিয়তে বিক্রি করবে। সদকার নিয়ত না করে নিজের খরচের নিয়ত করা নাজায়েয ও গুনাহ। নিয়ত যা-ই হোক বিক্রিলব্ধ অর্থ পুরোটাই সদকা করে দেওয়া জরুরি। الهندية ৫/৩০১, قاضيخان ৩/৩৫৪
৫৯। প্রশ্ন: কুরবানীর শেষ সময়ে মুকীম হলে কুরবানী করতে হবে কিনা?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : কুরবানীর সময়ের প্রথম দিকে মুসাফির থাকার পরে ৩য় দিন কুরবানীর সময় শেষ হওয়ার পূর্বে মুকীম হয়ে গেলে তার উপর কুরবানী ওয়াজিব হবে। পক্ষান্তরে প্রথম দিনে মুকীম ছিল অতপর তৃতীয় দিনে মুসাফির হয়ে গেছে তাহলেও তার উপর কুরবানী ওয়াজিব থাকবে না। অর্থাৎ সে কুরবানী না দিলে গুনাহগার হবে না। بدائع ৪/১৯৬, خانية ৩/৩৪৬,الدر المختار ৬/৩১৯
৬০। প্রশ্ন: কুরবানীর পশুতে ভিন্ন ইবাদতের নিয়তে শরীক হওয়া
“””””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর :এক কুরবানীর পশুতে আকীকা, হজ্বের কুরবানীর নিয়ত করা যাবে। এতে প্রত্যেকের নিয়তকৃত ইবাদত আদায় হয়ে যাবে।بدائع ৪/২০৯, رد المحتار ৬/৩২৬, المبسوط للسرخسى ৪/১৪৪, العناية ৮/৪৩৫-৩৪৬ المغنى ৫/৪৫৯
৬১। প্রশ্ন: কুরবানীর গোশত দিয়ে খানা শুরু করা কী?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : ঈদুল আযহার দিন সর্বপ্রথম নিজ কুরবানীর গোশত দিয়ে খানা শুরু করা সুন্নত। অর্থাৎ সকাল থেকে কিছু না খেয়ে প্রথমে কুরবানীর গোশত খাওয়া সুন্নত। এই সুন্নত শুধু ১০ যিলহজ্বের জন্য। ১১ বা ১২ তারিখের গোশত দিয়ে খানা শুরু করা সুন্নত নয়। جامع ترمزى ১/১২০, الدر المختار ২/১৭৬, البحر الرائق ২/১৬৩
৬২। প্রশ্ন: কুরবানীর পশুর হাড় বিক্রি করা যাবে কিনা?
“”””””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : . কুরবানীর মৌসুমে অনেক মহাজন কুরবানীর হাড় ক্রয় করে থাকে। টোকাইরা বাড়ি বাড়ি থেকে হাড় সংগ্রহ করে তাদের কাছে বিক্রি করে। এদের ক্রয়-বিক্রয় জায়েয। এতে কোনো অসুবিধা নেই। কিন্তু কোনো কুরবানীদাতার জন্য নিজ কুরবানীর কোনো কিছু এমনকি হাড়ও বিক্রি করা জায়েয হবে না। করলে মূল্য সদকা করে দিতে হবে। আর জেনে শুনে মহাজনদের জন্য এদের কাছ থেকে ক্রয় করাও বৈধ হবে না। بدائع ৪/২২৫, قاضيخان৩/৩৫৪,
৬৩। প্রশ্ন: কাজের লোককে কুরবানীর গোশত খাওয়ানো যাবে?
“””””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : কুরবানীর পশুর কোনো কিছু পারিশ্রমিক হিসাবে দেওয়া জায়েয নয়। গোশতও পারিশ্রমিক হিসেবে কাজের লোককে দেওয়া যাবে না। অবশ্য এ সময় ঘরের অন্যান্য সদস্যদের মতো কাজের লোকদেরকেও গোশত খাওয়ানো যাবে।احكام القران للجساس ৩/২৩৭, بدائع ৪/২২৪, البحر الرائق ৮/৩২৬,
৬৪। প্রশ্ন: জবেহকারীকে পারিশ্রমিক দেয়ার বিধান কী?
“”””””””””””””””””””””””””””””””””””””
উত্তর : কুরবানী পশু জবেহ করে পারিশ্রমিক দেওয়া-নেওয়া জায়েয। তবে কুরবানীর পশুর কোনো কিছু পারিশ্রমিক হিসাবে দেওয়া যাবে না। -كفاية المفتى ৮/২৬৫
৬৫। প্রশ্ন: কুরবানীর সময় মোরগ কুরবানী করার বিধান কী?
“””””:”””””””””””””””””””” “””””””””””
উত্তর:. কোনো কোনো এলাকায় দরিদ্রদের মাঝে মোরগ কুরবানী করার প্রচলন আছে। এটি না জায়েয। কুরবানীর দিনে মোরগ জবেহ করা নিষেধ নয়, তবে কুরবানীর নিয়তে করা যাবে না। خلاصة ৪/৩১৪, البزازية ৬/২৯০, ৬/৩১৩,الهندية ৫/২০০

YouTube এ সকল অ্যাসাইনমেন্টের সমধান পেতে আমাদের অফিসিয়াল YouTube চ্যানেলটিতে এখনি সাবস্ক্রাইব করো।
আমাদের চ্যানেলঃ 10 Minute Madrasah

প্রশ্ন প্রকাশ হলে সবগুলো বিষয়ের উত্তর দেওয়া হবে। তাই তোমরা পেজটি সেভ বা বুকমার্ক  করে রাখো।

আপডেট পাওয়ার জন্য আমাদের ফেসবুক পেইজে যুক্ত থাকো

আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন।

Join Our Facebook Group

Recent Posts

অষ্টম (৮ম) শ্রেণি হোম সাইন্স তৃতীয় সপ্তাহের এ্যাসাইনমেন্ট ২০২১ এর সমাধান

অষ্টম (৮ম) শ্রেণি হোম সাইন্স তৃতীয় সপ্তাহের এ্যাসাইনমেন্ট ২০২১ এর সমাধান আমার সারাদিনের কর্মকাণ্ডের একটি… Read More

1 week ago

নবম (৯ম) শ্রেণি অর্থনীতি তৃতীয় সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট ২০২১ এর সমাধান

নবম (৯ম) শ্রেণি অর্থনীতি তৃতীয় সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট ২০২১ এর সমাধান Class 9 Economics 3rd Week… Read More

1 week ago

নবম শ্রেণি (৯ম) শ্রেণি গনিত তৃতীয় সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট ২০২১ এর সমাধান

নবম শ্রেণি (৯ম) শ্রেণি গনিত তৃতীয় সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট ২০২১ এর সমাধান নবম শ্রেণি (৯ম) শ্রেণি… Read More

1 week ago

নবম (৯ম) শ্রেণি উচ্চতর গনিত তৃতীয় সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট ২০২১ এর সমাধান

নবম শ্রেণি উচ্চতর গনিত (৯ম) শ্রেণি অ্যাসাইনমেন্ট ২০২১ (৩য় সপ্তাহ) এর সমাধান নবম (৯ম) শ্রেণি… Read More

1 week ago

১৯৫২ থেকে ১৯৭১ পর্যন্ত সময়কালে মুক্তিযুদ্ধের আন্দোলন ও বঙ্গবন্ধুর অবদান | ২য় সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট ২০২১ এর সমাধান

১৯৫২ থেকে ১৯৭১ পর্যন্ত সময়কালে মুক্তিযুদ্ধের আন্দোলন ও বঙ্গবন্ধুর অবদান ২য় সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট ২০২১ এর… Read More

2 weeks ago

অ্যাসাইনমেন্ট ২০২১ (Assignment 2021) এর সমাধান

দশম সপ্তাহ (10th Week) নবম সপ্তাহ (9th Week) অষ্টম সপ্তাহ (8th Week) সপ্তম সপ্তাহ (7th… Read More

2 weeks ago